Home বাগাতিপাড়া বাগাতিপাড়ায় কলেজ ছাত্রীকে গণধর্ষনের ঘটনায় ৪শিক্ষার্থীকে আটকাদেশ

বাগাতিপাড়ায় কলেজ ছাত্রীকে গণধর্ষনের ঘটনায় ৪শিক্ষার্থীকে আটকাদেশ

81
0
দলগত ধর্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নাটোরের বাগাতিপাড়ার দয়ারামপুর স্যাপার কলেজের এক শিক্ষার্থীকে গণধর্ষনের ঘটনায় ৪শিক্ষার্থীকে ১০বছর করে আটক আদেশ দিয়ে সেফ হোমে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নাটোর শিশু আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আব্দুর রহিম এই আদেশ দেন।

আটককৃতরা হচ্ছে, লালপুর উপজেলার দাংগাপাড়া এলাকার মহরম আলীর ছেলে তুষার আলী (১৮), বাগাতিপাড়া উপজেলার শ্রীবতীপাড়া এলাকার ওবাইদুর রহমানের ছেলে ইমন হোসেন, লালপুরের পুকুরপাড়া এলাকার আন্তাজ আলীর মেয়ে মেঘলা খাতুন এবং নলডাঙ্গা উপজেলার পূর্বমাধনগর এলাকার সালামের ছেলে তুষার আলী।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, বাগাতিপাড়ার দয়ারামপুর স্যাপার কলেজের শিক্ষার্থীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলার জন্য বিভিন্ন ভাবে প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো একই কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র তুষার আলী। কিন্তু মেয়েটি তার প্রেমের প্রস্তাবে রাজি হয় না। পরে কলেজ ছুটির পর ২০১৭সালের ১২জুলাই পানির সাথে চেতনানাশক খাইয়ে মেয়েটিকে অপহরন করে সংঘবদ্ধ ৪শিক্ষার্থী।

এসময় সিএসনজি যোগে অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে গিয়ে ওই কলেজ শিক্ষার্থীকে গণধর্ষনের পর ভিডিও ধারন করে তারা। পরে ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে বিভিন্ন সময় মেয়েটিকে ধর্ষন করে তারা। দিন দিন ধর্ষনের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার কারনে মেয়েটি আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়।

পরে চিকিৎসা শেষে ঘটনার বিস্তারিত পরিবারকে জানায় মেয়েটি। পরবর্তীতে মেয়েটির মা বাদী হয়ে বাগাতিপাড়া থানায় ৪জনের নাম উল্লেখ করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। আজ বিচারক মামলার সাক্ষ্য প্রমান শেষে ৪শিক্ষার্থীকে ১০বছর করে আটকাদেশ দিয়ে যশোর সেফ হোমে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।

Previous articleনাটোরে এসএসসি পরীক্ষার্থীকে গণধর্ষণ: নারী সহ ৫জন আটক (ভিডিওসহ)
Next articleদপ্তর প্রধানদের নিয়ে জনগণের মুখোমুখি হলেন প্রতিমন্ত্রী পলক!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here